রবিবার ১৬ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ২রা আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

শিরোনাম
শিরোনাম

সেন্টমার্টিনে দারুল ইসলাম কমপ্লেক্সের যাত্রা শুরু

ডেস্ক নিউজ   |   বৃহস্পতিবার, ০৯ মে ২০২৪

সেন্টমার্টিনে দারুল ইসলাম কমপ্লেক্সের যাত্রা শুরু

কক্সবাজারের টেকনাফ সেন্টমার্টিনে দ্বীনি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান দারুল ইসলাম কমপ্লেক্সের যাত্রা শুরু হয়েছে।

বুধবার (৮ মে) সকাল ১০ ঘটিকায় আনুষ্ঠানিকভাবে সেন্টমার্টিন দারুল ইসলাম কমপ্লেক্স মডেল মাদ্রাসার শুভ উদ্বোধন করা হয়।

সেন্ট মার্টিন দারুল ইসলাম কমপ্লেক্স মডেল মাদ্রাসার মোহতামীম মাওলানা হাফেজ আবুল হোসাইনের সভাপতিত্ব ও সেন্টমার্টিন হোসাইন জহুরা ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান এমএ রহিম জিহাদীর সঞ্চালনায় উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান ছিলেন, সেন্টমার্টিন ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান মাওলানা ফিরোজ আহমদ খাঁন।

বিশেষ অথিতি ছিলেন, মাওলানা রশিদ আহমদ, সেন্টমার্টিন ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক প্যানেল চেয়ারম্যান আব্দুর রহমান, ইউপি সদস্য শামসুল ইসলাম, সাবেক ইউপি সদস্য নুরুল হক, সাবেক ইউপি সদস্য হাবিবুর রহমান খাঁন, হাফেজ আবু তৈয়ব।

উদ্বোধনে বক্তব্যে এমএ রহিম জিহাদী বলেন, গত ২১ ফেব্রুয়ারি আমার মা শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। মারা যাওয়ার ১০ দিন আগে আমাকে ও আমার ছোট ভাইদের ডেকে মা বলেন, আমার কিছু টাকা এবং স্বর্ণালংকার আছে। তোমরা যে মাদ্রাসাটি করবে সর্বপ্রথম আমার জমা রাখা টাকা দিয়ে কাজ শুরু করবে। এবং স্বর্ণগুলো বিক্রি করে মাদ্রাসায় দান করবে। মায়ের কথা পালন করতে গিয়ে সকলের সহযোগিতায় আজ সেন্টমার্টিনে দারুল ইসলাম কমপ্লেক্স প্রতিষ্ঠিত হয়েছে।

তিনি বলেন, দ্বীপবাসীর সহযোগীতা কামনা করছি। দক্ষ মানবসম্পদ গঠনের ক্ষেত্রে শিক্ষার কোনো বিকল্প নেই। শিক্ষার গুরুত্ব অনেক। একইভাবে ধর্মীয় শিক্ষা নৈতিক শিক্ষার অন্যতম ভিত্তি। অত্র মাদ্রাসা একইসঙ্গে সেন্টমার্টিন দ্বীপে দক্ষ ও সৎ নাগরিক গড়ে তোলার ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে সাবেক প্যানেল চেয়ারম্যান আব্দুর রহমান বলেন, সেন্টমার্টিন দারুল ইসলাম কমপ্লেক্সের সফলতা কামনা করছি। এই মাদ্রাসা যেন রাজনীতি মুক্ত থাকে।

হাবিবুর রহমান খাঁন বলেন, প্রতিষ্ঠান করা সহজ তবে ঠিকে রাখা কঠিন। এমন মহৎ উদ্যোগের জন্য সেন্টমার্টিন হোসাইন জহুরা ফাউন্ডেশন পরিবারকে ধন্যবাদ।

মাওলানা রশিদ আহমদ বলেন, আমার ছোট ভাই আব্দুর রহমান জিহাদী ও তার পরিবার এ দ্বীপের কল্যাণে কাজ করে যাচ্ছেন। তার বাবা-মাও এ দ্বীপের সেবক ছিলেন। অত্র মাদ্রাসার জন্য আমার সহযোগিতা ও দোয়া সবসময় থাকবে এবং আল্লাহ যেন কেয়ামত পর্যন্ত এ মাদ্রাসাকে টিকে থাকতে কবুল করেন নেন, আল্লাহর কাছে প্রার্থনা করছি।

ইউপি সদস্য শামসুল ইসলাম বলেন, সমাজ বা এলাকার পরিবর্তন চাইলে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের কোনো বিকল্প নেই। দ্বীপে যত বেশি ধর্মীয় শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বাড়বে তত বেশি আমরা এগিয়ে যাবো।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ফিরোজ আহমদ খাঁন বক্তব্যে বলেন, সেন্টমার্টিন দ্বীপে যতগুলো মাদ্রাসা রয়েছে সবাইকে আজকের অনুষ্ঠানে দাওয়াত করা হয়েছে। দুঃখের সাথে বলতে হচ্ছে একটা প্রতিষ্ঠান থেকেও কোনো মোহতামীম, শিক্ষক বা প্রতিনিধি আসেনি। এতো হিংসে ভরা আমাদের এই সমাজ। দিনদিন নষ্ট হয়ে যাচ্ছে সমাজের মানুষ। হিংসে বিদ্বেষ পরিহার করে আমাদের এগিয়ে যেতে হবে।

এসময় মাওলানা রফিক আহমদ, ডা. হাফেজ আহমদ, মাওলানা হারুনুর রশিদ, হাফেজ মাওলানা বাহার উদ্দিন, মাওলানা নুরুল আলম, মাওলানা মামুনুর রশিদ, সাংবাদিক আব্দুল মালেক, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ছিদ্দিকুর রহমান, আব্দুর রহিম, ফরিদ আহমদ, জিয়াউর রহমান, নাছির উদ্দিন, রশিদ আহমদ, আবু বক্কর(ডাক্তার), শাহ আলাম, মোহাম্মদ আমিন, মেহাম্মদ ইয়াছিনসহ অত্র মাদ্রাসার শিক্ষক, শিক্ষার্থী এবং আরো ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

Comments

comments

Posted ১০:৪৬ অপরাহ্ণ | বৃহস্পতিবার, ০৯ মে ২০২৪

dbncox.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

আর্কাইভ

প্রকাশক
তাহা ইয়াহিয়া
সম্পাদক
মোঃ আয়ুবুল ইসলাম
প্রধান কার্যালয়
প্রকাশক কর্তৃক প্রকাশিত এবং দেশবিদেশ অফসেট প্রিন্টার্স, শহীদ সরণী (শহীদ মিনারের বিপরীতে) কক্সবাজার থেকে মুদ্রিত
ফোন ও ফ্যাক্স
০৩৪১-৬৪১৮৮
বিজ্ঞাপন ও সার্কুলেশন
01870-646060
Email
ajkerdeshbidesh@yahoo.com