রবিবার ২৯শে জানুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ | ১৫ই মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

শিরোনাম
শিরোনাম

রামুতে সংখ্যালঘু পরিবারের জমি দখলে সন্ত্রাসী হামলা: মাষ্টার মাইকেল পালকে জীবন নাশের হুমকি 

বার্তা পরিবেশক    |   শনিবার, ৩১ ডিসেম্বর ২০২২

রামু রাজারকুল পাল পাড়াস্থ মাষ্টার মাইকেল পালের ক্রয়কৃত ভোগদখলীয় জমি দখলের জন্য হামলা করেছে ভূমিদস্যু সন্ত্রাসীরা। রামু থানায় দায়ের করা মামলায থেকে জানা যায়, রাজারকুলের পশ্চিম হালদারকুলের ভূমিদস্যু কলিম উল্লাহ, জলিল কাদের, মুফিজুর রহমান , হাবিবুর রহমান, মোহাম্মদ উল্লাহ শুকুসহ আরো অনেকে ২৮ ডিসেম্বর সকালে মাষ্টার মাইকেল পালের নিজস্ব জমি দখলের জন্য হামলা করে।  জমি জবর দখলের জন্য দা,লাঠি , ধারালো অস্ত্র- নিয়ে হামলা করে। এসময় তারা গালি গালাজ করে প্রাণ নাশের হুমকি দেয়।
মাষ্টার মাইকেল পাল জানান, আমদের তফসীলের জমিতে আমরা গেলে তখন এসব ভূমিদস্যুরা লাঠি আর ধারালো অস্ত্র নিয়ে আমাদের উপর হামলা করতে ধেয়ে আসে। এ সময় তারা অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ সহ প্রাণে মেরে ফেলার হুমকি দেয়।
তিনি আরো জানান, ১৯৬১ সনে নবীন পাল তার সম্পত্তির প্রাপ্ত অংশের সম্পূর্ণ টা ঠান্ডা মিয়া নামক ব্যক্তিকে, ঠান্ডা মিয়া হতে ১৯৮৩ সনে আমাদের হাতে আসে (ক্রয়মূলে)। রেজিঃকবলামূলে খরিদ করে ৪০ বছর ধরে ভোগদখলে আছি।
গত ২৮ ডিসেম্বর আমার পাশ্ববর্তী কলিম উল্লাহ পিতা মৃত মেহের আলী ও জলিল কাদের পিতা মৃত কালামিয়া কিছু কিছু লোক নিয়ে এসে আমার ভোগদখলীয় ঐ জমি তাদের বলে দাবি করে এবং ঐ জমিতে নামলে আমাদেরকে প্রাণ নাশের হুমকি দেয়। পরে আমরা সংখ্যালঘু নিরিহ পেয়ে আমাদের ভোগদখলীয় ঐজমি তারা বাহু বলে সন্ত্রাসী হামলায় দখল করার উদ্দেশ্যে জমিতে চাষ দিয়ে দেয়।ওরা ভূমি লোভী সন্ত্রাসী ও দুষ্ট প্রকৃতির লোক হওয়ায় আমাদের সম্প্রদায়ের এবং অন্যরাও মুখ খোলতে সাহস পাচ্ছে না।
এমতাবস্থায় ৩০ ডিসেম্বর রামু থানায় তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ দাখিল করা হয়।
সংখ্যালঘুদের ওপর এহেন হামলায় বাংলাদেশ হিন্দু -বৌদ্ধ -খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ, কক্সবাজার জেলা ও উপজেলা পূজা উৎযাপন পরিষদ তীব্র নিন্দা ঞ্জাপন করেন এবং উক্ত ঘটনা সুষ্ঠ তদন্ত সাপেক্ষে উক্ত বিরোধ নিরসনের জন্য কর্তৃপক্ষের দ্রুত হস্তক্ষেপ কামনা করেন।
উল্লেখ্য যে, উক্ত জমির কিছু অংশ কলঘর বাজার হতে রামু সেনানিবাস এর যাতায়তের তৈরি রাস্তার ভুমি অধিগ্রহণ অংশে থাকায় উক্ত ভুমি অধিগ্রহণের  টাকাও পান মাইকেল পাল, যা উক্ত জমির মালিকানার প্রধান সাক্ষ্য বহণ করে।

Comments

comments

Posted ৯:১৬ অপরাহ্ণ | শনিবার, ৩১ ডিসেম্বর ২০২২

dbncox.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

দশ বছর পর
দশ বছর পর

(1494 বার পঠিত)

সেই মা সেই ছবি
সেই মা সেই ছবি

(1130 বার পঠিত)

(1122 বার পঠিত)

advertisement
advertisement
advertisement

এ বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

প্রকাশক
তাহা ইয়াহিয়া
সম্পাদক
মোঃ আয়ুবুল ইসলাম
প্রধান কার্যালয়
প্রকাশক কর্তৃক প্রকাশিত এবং দেশবিদেশ অফসেট প্রিন্টার্স, শহীদ সরণী (শহীদ মিনারের বিপরীতে) কক্সবাজার থেকে মুদ্রিত
ফোন ও ফ্যাক্স
০৩৪১-৬৪১৮৮
বিজ্ঞাপন ও সার্কুলেশন
01870-646060
Email
ajkerdeshbidesh@yahoo.com