বৃহস্পতিবার ২৩শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ৯ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

শিরোনাম
শিরোনাম

মৃত ব্যাক্তির চেক দিয়ে প্রতারনা করে ভুমি অধিগ্রহনের টাকা আত্মসাতের পায়তারা করছে মহেশখালীর জয়নাব আক্তার মুন্নি

বার্তা পরিবেশক   |   বুধবার, ০৩ এপ্রিল ২০২৪

মৃত ব্যাক্তির চেক দিয়ে প্রতারনা করে ভুমি অধিগ্রহনের টাকা আত্মসাতের পায়তারা করছে মহেশখালীর জয়নাব আক্তার মুন্নি

মৃত ব্যাক্তির একাউন্ট নাম্বারের চেক দিয়ে প্রতারণার মাধ্যমে কক্সবাজারের ভুমি অধিগ্রহন শাখা থেকে নেওয়া টাকা প্রকৃত মালিককে না দিলে আত্মসাতের চেষ্টা করছে মহেশখালীর কালারমারছড়ার এক নারী। ইতি মধ্যে সেই নারীর বিরুদ্ধে প্রশাসন ও সংশ্লিষ্ট্য ব্যাংকে অভিযোগ করা হয়েছে।

এ বিষয়ে সবাই সতর্ক থাকার আহবান জানিয়েছেন ভোক্তভোগী মহেশখালী কালারমারছড়ার কুইল্লাহ মিয়ার ছেলে ইউনুচ মিয়ার পক্ষে তার স্ত্রী হুমায়রা বেগম। কক্সবাজার সদর মডেল থানা ও কক্সবাজার উত্তরা ব্যাংকের ম্যনেজারের কাছে দেওয়া এক অভিযোগ পত্র থেকে জানা গেছে, এল এ মামলা নং ১৩/২০১৮-১৯ কালারমারছড়া মৌজার রোযেদাদ নং – ৭ । বিএস খতিয়ান নং ৭০১ বি এস দাগ নং ১৬৭৯। মূলে রেকর্ডিয় মালিক আবদুল হাকিম।

তৎমরণে আবদুল হাকিমের ২ স্ত্রী ২ পুত্র যথাক্রমে এখলাছুর রহমান ও কুইল্যা মিয়া ও ২ কন্যা প্রাপ্ত হন। কুইল্ল্যা মিয়া মরনে যথাক্রমে ২ স্ত্রী ২ পুত্র যথাক্রমে রহিম উদ্দিন ও ইউনুচ মিয়া কন্যা ফাতেমা প্রাপ্ত হন। উক্ত ফাতেমা মরনে স্বামী ২ পুত্র কন্যা জয়নার আক্তার মুন্নী সহ ৬ কন্যা প্রাপ্ত হন। ইতি মধ্যে সকল আইনী প্রক্রিয়া শেষ করে কক্সবাজার ভুমি অধিগ্রহন শাখা কাজ চলাচালীন জমির প্রকৃত মালিক ইউনুচ মিয়া সরল বিশ^াষ করে আপন ভাগ্নি জয়নাব আক্তার মুন্নিকে পাওয়ারঅফ এটর্নি দেয়। যাতে ভুমি অধিগ্রহন শাখার কাজ সুন্দর ভাবে চলতে পারে। সে অনুযায়ী জয়নাব আক্তার মুন্নীকে এল এ চেক নং ০৮২৫৫৩২ মুলে ১,৭৪,৪৪৫ টাকার চেক প্রদান করেন। কিন্তু সূচতুর জয়নার আক্তার মুন্নি ইউনুচ মিয়াকে তার মৃত মায়ের হিসাব নাম্বার কক্সবাজার উত্তরা ব্যাংকের একটি চেকে ১ লাখ ১০ হাজার টাকার চেক প্রদান করেন।

কিন্তু পরে আমরা উত্তরা ব্যাংকে গিয়ে জানতে পারি সেটা মৃত মানুষের একাউন্ট নাম্বার তাই চেক কাজ করবে না। মূলত সম্পূর্ন টাকা আত্মসাতের উদ্দ্যেশে জয়নাব আক্তার মুন্নি ইউনুচ মিয়ার সাথে প্রতারণা করে এমন জঘন্য কাজ করেছে। তাই এমন ভয়ংকর অপরাধের শাস্তির দাবী এবং কক্সবাজার উত্তরা ব্যাংক থেকে যাকে এল এ শাখার সেই চেক দিয়ে টাকা উত্তোলন করতে না পারে সে জন্য ইউনুচ মিয়ার পক্ষে তার স্ত্রী হুমায়রা বেগম সদর থানা সহ জেলা প্রশাসন এবং ব্যাংকের সহযোগিতা কামনা করেছেন

Comments

comments

Posted ১২:৪২ পূর্বাহ্ণ | বুধবার, ০৩ এপ্রিল ২০২৪

dbncox.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

এ বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

প্রকাশক
তাহা ইয়াহিয়া
সম্পাদক
মোঃ আয়ুবুল ইসলাম
প্রধান কার্যালয়
প্রকাশক কর্তৃক প্রকাশিত এবং দেশবিদেশ অফসেট প্রিন্টার্স, শহীদ সরণী (শহীদ মিনারের বিপরীতে) কক্সবাজার থেকে মুদ্রিত
ফোন ও ফ্যাক্স
০৩৪১-৬৪১৮৮
বিজ্ঞাপন ও সার্কুলেশন
01870-646060
Email
ajkerdeshbidesh@yahoo.com